৭৪ তম জন্মবার্ষিকীতে খুলনায় বিএনপির আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিল

 

গাজী যুবায়ের আলম, ব্যুরো প্রধান, খুলনা ঃ বিএনপির চেয়ারপারসন ও সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়ার ৭৪ তম জন্মবার্ষিকীতে তার আশু কারামুক্তি এবং সুস্বাস্থ্য-দীর্ঘায়ু কামণা করে খুলনায় আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিল করেছে মহানগর বিএনপি।
আজ বুধবার সকাল ১১ টায় নগরীর কে ডি ঘোষ রোডে দলীয় কার্যালয়ে আলোচনা সভায় সভাপতিত্ব করেন বিএনপির কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক ও মহানগর সভাপতি সাবেক এমপি নজরুল ইসলাম মঞ্জু। সভাপতির বক্তব্যে নজরুল ইসলাম মঞ্জু বলেন, ৩৭ বছরের দীর্ঘ রাজনৈতিক জীবনে দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে ২১ বছর গণতান্ত্রিক শাসন ব্যবস্থা পুনরুদ্ধারের জন্য আপোসহীন আন্দোলন করতে হয়েছে। সামরিক স্বৈরশাসক এরশাদ এবং একদলীয় বাকশালী শাসনের বিরুদ্ধে সংগ্রাম করার কারণে তিনি গৃহবন্দী ও কারাবন্ধি হয়েছেন। দেশ ও জনগনের কাছে তিনি আপোসহীনতার জন্য অনন্য মর্যাদায় অভিষিক্ত। তার অনমনীয়তার কারণে ওয়ান-ইলেভেনের সরকার মাইনাস টু ফর্মুলা বাস্তবায়ন করতে পারেনি। তিনি বলেন, জনগনের ভোটের অধিকার কেড়ে নেয়া হয়েছে। গণতন্ত্রকে কবরে পাঠানো হয়েছে। মত প্রকাশের স্বাধীনতা হরণ করা হয়েছে। আর মৌলিক গণতান্ত্রিক সাংবিধানিক অধিকার আদায়ের লড়াই করার অপরাধে খালেদা জিয়া আজ মিথ্যা মামলায় কারাগারে। সরকার বিএনপিকে ধ্বংস করতে এবং জিয়া পরিবারের হাত থেকে নেতৃত্ব কেড়ে নিতে বহু ষড়যন্ত্র করছে। কিন্ত তাদের মনে রাখা উচিৎ, জিয়া পরিবার এবং বিএনপি জনগনের মনের গভীরে দৃঢ় অবস্থান করে নিয়েছে। বেগম জিয়াকে ছাড়া এদেশে আর কোন জাতীয় নির্বাচন হবেনা, হতে দেয়া হবেনা। নজরুল ইসলাম মঞ্জু দৃঢ়তার সাথে বলেন, দলকে ঐক্যবদ্ধ করে, জনগনকে পাশে রেখে শক্ত হয়ে ঘুরে দাড়াতে পারলেই এই সরকারের পতন ঘটবে। এ জন্য সাহসী কর্মী ও সাহসী নেতৃত্বকে সামনে আনতে হবে। সরকার অবাধ নিরপেক্ষ নির্বাচনকে ভয় পায়, কারণ সে ধরনের নির্বাচনে তাদের শোচনীয় পরাজয় ঘটবে। তিনি দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে কারামুক্ত করে গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠার চূড়ান্ত আন্দোলনের প্রস্ততি নিতে নেতাকর্মীদের প্রতি আহবান জানান। বিএনপি নেতা আসাদুজ্জামান মুরাদের পরিচালনায় স্বাগত বক্তব্য রাখেন কেসিসির মেয়র ও নগর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক মনিরুজ্জামান মনি। দোয়া মোনাজাত পরিচালনা করেন ওলামা দল নেতা মাওলানা আব্দুল গফফার। কর্মসূচিতে অংশ নেন কাজী সেকেন্দার আলী ডালিম, মীর কায়সেদ আলী, শেখ মোশারফ হোসেন, জাফরউল্লাহ খান সাচ্চু, জলিল খান কালাম, এ্যাড, বজলুর রহমান, এ্যাড. এস আর ফারুক, রোহানা আক্তার, স ম আব্দুর রহমান, অধ্যক্ষ তারিকুল ইসলাম, অধ্যাপক আরিফুজ্জামান অপু, সিরাজুল হক নান্নু, মাহবুব কায়সার, নজরুল ইসলাম বাবু, মেহেদী হাসান দীপু, মহিবুজ্জামান কচি, শফিকুল ইসলাম তুহিন, এ্যাড. গোলাম মাওলা, ইকবাল হোসেন খোকন, মোঃ শাহজাহান, জালু মিয়া, অধ্যাপক ডাঃ সেখ মোঃ আখতার উজ জামান, আজিজা খানম এলিজা, এহতেশামুল হক শাওন, শেখ সাদী, ইউসুফ হারুন মজনু, সাজ্জাদ আহসান পরাগ, মাসুদ পারভেজ বাবু, একরামুল হক হেলাল, হাসানুর রশিদ মিরাজ, ইশতিয়াকউদ্দিন লাভলু, শামসুজ্জামান চ ল, মাহবুব হাসান পিয়ারু, নাজমুল হুদা চৌধুরী, কামরান হাসান, শরিফুল ইসলাম বাবু, হেলাল আহমেদ সুমন, এ্যাড. মশিউর রহমান নান্নু, নিয়াজ আহমেদ তুহিন, মুজিবর রহমান ফয়েজ, শেখ ইমাম হোসেন, হাফিজুর রহমান মনি, মীর কবির হোসেন, এ্যাড. মোহাম্মদ আলী বাবু, তরিকুল্লাহ খান, হাবিব বিশ্বাস, জহর মীর, আবু সাঈদ হাওলাদার আব্বাস, বদরুল আনাম, হাসানউল্লাহ বুলবুল, আবু সাঈদ শেখ, নিঘাত সীমা, মাহবুব হাসান পিয়ারু, মাহবুব হোসেন, রবিউল ইসলাম, শেখ আব্দুর জব্বার, এইচ এম আসলাম, সাইফুল ইসলাম, তৌহিদুল ইসলাম খোকন, মোস্তফা কামাল, মোঃ ওহেদুজ্জামান, লিটন খান, বাচ্চু মীর, শাহাবুদ্দিন মন্টু, শফিকুল ইসলাম শাহিন, আনসার আলী, মাজেদা বেগম, আনজিরা বেগম, রোকেয়া ফারুক, সাইমুন ইসলাম রাজ্জাক, জাহাঙ্গীর হোসেন, ডাঃ ফারুক হোসেন, জি এম রফিকুল হাসান, রবিউল ইসলাম রুবেল, মোহাম্মদ আলী, মনিরুল ইসলাম, কাজী নজরুল ইসলাম, রশিউর রহমান রুবেল, আবু বক্কর, হেদায়েত হোসেন হেদু প্রমুখ। দোয়ায় গুরুতর অসুস্থ নগর বিএনপির সহ সভাপতি সাহারুজ্জামান মোর্ত্তজার সুস্থ্যতা কামণা করা হয়। সেই সাথে স্ট্রোকে আক্রান্ত ফটো সাংবাদিক দেবব্রত রায় দেবুর আশু সুস্থতা কামণা করা হয়। জেলা বিএনপি ঃ এর আগে আজ বুধবার সকাল ১০ টায় জেলা বিএনপির উদ্যোগে আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়। সভায় সভাপতিত্ব করেন বিএনপির জাতীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য ও জেলা সভাপতি এ্যাড. এস এম শফিকুল আলম মনা। উপস্থিত ছিলেন আমীর এজাজ খান, কামরুজ্জামান টুকু, আশরাফুল আলম নান্নু, চৌধুরী কওসার আলী, মেজবাউল আলম, এ্যাড. মোমরেজুল ইসলাম, সাইফুর রহমান মিন্টু, ডাঃ আব্দুল মজিদ, আব্দুর রকিব মল্লিক, এ্যাড. মাসুম আল রশিদ, এ্যাড. তছলিমা খাতুন ছন্দা, এ্যাড. শরিফুল ইসলাম খোকন, মোস্তফা উল বারী লাভলু, এ্যাড. শহিদুল আলম, শামসুল আলম পিন্টু, ওয়াহিদুজ্জামান রানা, মোল্লা কবির হোসেন, শামীম কবির, উজ্জল কুমার সাহা, জাবির আলী, আব্দুল মান্নান মিস্ত্রি, মশিউর রহমান যাদু, শেখ হাফিজুর রহমান, মোল্লা সাইফুর রহমান, খন্দকার ফারুক হোসেন, এ্যাড. চৌধুরী আব্দুস সবুর, সাইফুর হাসান রবি, শাহনাজ ইসলাম, হাবিবুর রহমান হবি, ওয়াইজউদ্দিন সান্টু, হাফেজ আবুল বাশার, গোলাম কিবরিয়া আশা, মুনির হোসেন, আব্দুস সালাম মেম্বার, রফিকুল ইসলাম বাবু, জসিমউদ্দিন লাবু, শামসুল বারিক পান্না, রাহাত আলী লাচ্চু, কাজী জায়েদা, এ্যাড. জি এম মাসুদ করিম, তানভীরুল আযম রুম্মান, সেলিম সরদার, বিকাশ মিত্র, আবু হানিফ, সফিকুল ইসলাম, এস্কেন্দার মির্জা, আব্দুল মালেক, সরোয়ার হোসেন, আলতাফ মোল্লা, সফিক আহমেদ মেজবাহ, কবির হাসান ডাবলু, শহিদুল ইসলাম, নাসিমা পলি, মনিরা সুলতানা, মাহমুদা লাকি, মুন্নি আক্তার, মোল্লা মাহমুদুল হাসান, সাহাবুদ্দিন ইজারাদার, সাইফুল পাইক, মিকাঈল বিশ্বাস, ফরিদ আনোয়ার, শেখ আব্দুর রহমান, আমিরুল ইসলাম তারেক, সাইফুল মোড়ল, রেজাউল ইসলাম খোকন, দেলোয়ার হোসেন, আবু জাফর প্রমুখ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *