কালীগঞ্জে নিম্নমানের ইট দিয়ে সলিং রাস্তা করে বিল উত্তোলন

মোঃ হাবিব ওসমান, ঝিনাইদহ ব্যুরোঃ
ঝিনাইদহের কালীগঞ্জ উপজেলার আলাইপুর জামতলা থেকে চিত্রা নদী পর্যন্ত সড়কটি এইচবিবি করণের পর বালু দেওয়া হয়নি। নি¤œমানের ইট বিছিয়ে তৈরী করা হয়েছে পাঁকা সলিং রাস্তাটি। বালু না থাকায় নতুন রাস্তায় যানবাহনে বিরক্তিকর শব্দ তৈরী হচ্ছে। এছাড়া নির্মানের মাত্র দুই মাসের মধ্যেই ভাংতে শুরু করেছে ইটগুলো। আর আলগা, উঁচু-নিচু ইটের উপর দিয়ে যানবাহন চলাকালে ঘড়ঘড় শব্দ শুনছে পথচারী ও স্থানীয় জনগন। কষ্ট করেই চলতে হচ্ছে এলজিইডি’র তৈরী করা সদ্য নির্মিত পাঁকা সড়কটি দিয়ে।
এই বেহাল অবস্থা দেখে গ্রামবাসি বলছেন তারা নিম্নমানের ইট ব্যবহার না করার অনুরোধ করেও ব্যর্থ হয়েছেন। আর অনেকবার ইটের উপর বালু দেওয়ার অনুরোধও করেছেন, কিন্তু কোনো কাজ হয়নি। উল্টো ঠিকাদার এই কাজের চুড়ান্ত বিল উত্তোলন করে নিয়েছেন। কালীগঞ্জ এলজিইডি দপ্তরে খোজ নিয়ে জানাগেছে, ঝিনাইদহের কালীগঞ্জ উপজেলার সুন্দরপুর-দূর্গাপুর ইউনিয়নের আলাইপুর ও আলুকদিয়া গ্রামের লোকজনের চলাচলের একমাত্র রাস্তা আলাইপুর জামতলা-চিত্রা নদী রাস্তাটি এলজিইডি রাস্তাটি পাঁকা করার উদ্যোগ নেন। ২০১৫-১৬ অর্থ বছরে আই.আর.আই.ডি.পি প্রকল্পের মাধ্যমে রাস্তাটি পাঁকা করার জন্য দরপত্র আহবান করা হয়। দেড় কিলোমিটার রাস্তার কাজের জন্য ৪৫ লাখ ৫৮ হাজার ৪৭৭ টাকা বরাদ্ধ দেওয়া হয়। কাজটি পান ঝিনাইদহের ঠিকাদার মেসার্স কাজী মাহাবুবুর রহমান। কিন্তু ঠিকাদার কাজটি শুরু করতে বিলম্ব করেন। ২০১৮ সালের শুরুর দিকে ঠিকাদার রাস্তা নির্মান শুরু করেন। চলতি বছরের ৩০ মে শেষ করেছেন। আর ১১ জুন চুড়ান্ত বিল উত্তোলন করেছেন। সরেজমিনে দেখা গেছে, দুই মাস যেতে না যেতেই রাস্তাটি ভাংতে শুরু করেছে। যে ইট বিছানো রয়েছে তা খুবই নিম্নমানের। ইটগুলোই ফাঁকা করে সাজানো হয়েছে। আর এই ফাঁক বন্ধ করতে কোন বালু ব্যবহার করা হয়নি। যানবাহনের চাকায় ইটগুলো ভেঙ্গে যাচ্ছে। অনেক স্থানে ইট গুড়ো হয়ে গেছে। আলাইপুর গ্রামের রকি ইসলাম জানান, অত্যন্ত নিম্নমানের ইট দিয়ে কাজ করার সময় তারা আপত্তি করেন, কিন্তু ঠিকাদারের লোকজন শোনেনি। সবশেষে ইট বিছিয়ে তার উপর বালু না দিয়ে চলে যান। এ ব্যাপারে কালীগঞ্জ উপজেলা এলজিইডি’র উপ-সহকারী প্রকৌশলী অভিজিৎ কুমার বিশ্বাস জানান, জুন মাসে কাজ শেষ করে ঠিকাদার। সেই সময়ে কাজের প্রচন্ড চাপ ছিল। তিনি নিজে যাওয়ার সময় পাননি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *