এবার ভ্যান চালাবে পঙ্গু রেজাউল, দশের সহযোগিতায় চার্জার ভ্যানটি প্রদান করল সাংবাদিকবৃন্দ

মোঃ হাবিব ওসমান, ঝিনাইদহ ব্যুরোঃ
অবশেষে সেই ভিক্ষুক পঙ্গু রেজাউল তার কাঙ্খিত ভ্যানটি হাতে পেয়েছে। ফেসবুকের একটি পোষ্টে মানবিক আবেদনে সমাজের হৃদয়বানদের দেওয়া অনুদানের টাকায় সে ভ্যানটি বুঝে পায়। মঙ্গলবার বিকালে কালীগঞ্জ প্রেসক্লাবের সাংবাদিকবৃন্দ ও ¯’ানীয় সুধীজনের উপ¯ি’তিতে নবনির্বাচিত মেয়র আশরাফুল আলম আশরাফ রেজাউলকে ভ্যান ও টাকা প্রদান করেন। উল্লেখ্য গত সোমবার মাত্র ৩ হাজার বাকী টাকার জন্য ভিক্ষুক রেজাউলের কেনা ভ্যানটি বিক্রেতা দি”েছনা এমন বিষয়টি তার ছবি দিয়ে ফেসবুকে পোষ্ট করে সাংবাদিকরা। মানবিক ওই পোষ্টটি পড়ে তাৎক্ষনিক মাত্র ১ ঘন্টার ব্যাবধানে হৃদয়বান বিভিন্ন শ্রেনী পেশার মানুষেরা তাকে ৬ হাজার ২ শত টাকা অনুদান দেন। সেই টাকায় আজ পঙ্গু রেজাউল ফিরে পেল এক নতুন জীবন। এখন থেকে সে আর ভিক্ষাবৃত্তি করবে না, চার্জার ভ্যান চালিয়েই সংসার চালাবে।
একটি পা নেই রেজাউলের। সংসারে বৃদ্ধ মাতা, স্ত্রী ও চার বছরের এক শিশু সন্তান নিয়ে পরিবারের অন্ন যোগাতে বাধ্য হয়েই ক্রাচে ভর করে ভিক্ষাবৃত্তি করত। সে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে প্রতিশ্রæতি দিয়েছিল মাত্র ৩ হাজার টাকা পেলে আর ভিক্ষা করবে না। চার্জার ভ্যান চালিয়ে কর্ম করে খাবে। তার এমন আবেগী কথায় কালীগঞ্জ প্রেসক্লাবের সাংবাদিকবৃন্দ তাৎক্ষনিক সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে একটি ষ্টাটাস দিয়েছিল। ওই পোষ্টটি পড়েই সমাজের হৃদয়বাদ মানুষেরা মাত্র ১ ঘন্টার ব্যাবধানে প্রায় ৬ হাজার টাকা অনুদান দিয়েছিল। পঙ্গু রেজাউলের বাড়ী কালীগঞ্জ উপজেলা রাখালগাছী ইউনিয়নের কুল্লাপাড়া গ্রামে।
অসহায় পঙ্গু রেজাউল জানায়, এই টাকা পেয়ে সে খুবই খুশি। দু’হাত তুলে ওয়াদা করে আর কোনদিন ভিক্ষা করবে না। এখন থেকে এই ভ্যান চালিয়ে সংসার চালাবে।
কালীগঞ্জ প্রেসক্লাবের সভাপতি জামির হোসেন ও সাধারন সম্পাদক সাবজাল হোসেন জানান, মঙ্গলবার সন্ধ্যায় অনুদানপ্রাপ্ত টাকায় দিয়ে ভ্যান গ্রহন ও অতিরিক্ত টাকা পঙ্গু রেজাউলের হাতে প্রদান করা। এ সময়ে যুবলীগ নেতা শিবলী নোমানী সহ কালীগঞ্জের সকল সাংবাদিকরা উপ¯ি’ত ছিলেন। সাংবাদিকদের আহব্বানে সাড়া দিয়ে একজন অসহায় পঙ্গু অসহায় মানুষের পাশে দাড়ানোর জন্য কালীগঞ্জ প্রেসক্লাবের সভাপতি/সম্পাদক সহ সাংবাদিকদের পক্ষ থেকে সকলকে ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *