আনন্দ নগরে বইছে আনন্দের বন্যা

জনি পারভেজ.নাটোর(গুরুদাসপুর)প্রতিনিধি..মোড়ে মোড়ে সাউন্ড সিস্টেমে উচ্চ শব্দে বাজছে ডিজে গান-তার সাথে ছেলে মেয়ের নাচ,একে অন্যে জড়িয়ে ধরে আনন্দ অশ্রু,রঙ্গের হলি,গলায় গলায় ফুলের মালা তার সাথে হরেক পদের মিটির ছড়াছড়ি,রাতভর গানের শব্দে কেটেছে মহল্লাবাসীর। মহল্লাবাসীর রাতের ঘুমও ভেঙ্গেছে ব্যান্ড পার্টির ড্রামের শব্দেই। সাউন্ড সিস্টেম আর ব্যান্ডের তালের সাথে নাচ আর নাচের ভঙ্গিটা চিত্রাকর্ষক না হলেও শিশু থেকে পৌঢ় কোমর দুলিয়েছেন যে যার মতো। পেছনের কারন তাদের গর্বেরধন,নয়নের মনি আনোয়ার হোসেন হোসেন উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে ২১ হাজার ৬৯৫ ভোটের বিশাল ব্যবধানে জয়ী হয়েছেন। গুরুদাসপুর পৌর সদরের আনন্দ নগর মহল্লার সন্তান আনোয়ার হোসেন সকাল ৮ টায় আনন্দ নগর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে সর্বপ্রথম ভোট দিয়ে দিনের শুরু করেন। ভোট দিয়ে নিজের প্রতিক্রিয়ায় ভি চিহ্ন দেখিয়ে বলেন,আমি গুরুদাসপুরবাসীর প্রতি আস্থাশীল তারা চেয়ারম্যান হিসাবে আমাকেই বেছে নেবেন। জয়ের ব্যাপারে শতভাগ আশাবাদী আনোয়ার হোসেন আরো বলেন,নির্বাচিত হয়ে আমি সন্ত্রাস,মাদক,বাল্যবিয়ে মুক্ত,আধুনিক গুরুদাসপুর উপজেলা গড়তে চাই। উপজেলাবাসী তার আস্থার প্রতিদান দিয়ে তার ঘোড়া প্রতিকে ৪৩ হাজার ৬৪ ভোট দিয়ে গত রবিবার বিজয়ী করেছে। এত বিশাল ভোটে তিনি জয়ী হয়েছেন যে প্রতিদ্বন্দি দুই চেয়ারম্যান প্রার্থীর একত্রিত ভোটের চেয়ে ৬০১ ভোট বেশি। এসব কারনে তাদের আনন্দের মাত্র একটু বেশি। গত ১০ মার্চ রবিবার গুরুদাসপুর উপজেলার কোথাও কোন অপ্রীতিকর ঘটনা ছাড়া শান্তিপুর্নভাবে সকাল ৮ টায় শুরু হওয়া ভোট বিরতিহীনভাবে চলে ৪ টা পর্যন্ত ভীতিহীন,অবাধ, সুষ্ঠ নিরপেক্ষ,শান্তিপুর্ন পরিবেশে ভোট দিতে পেরে ভোটাররা খুশি। উপজেলায় মোট ভোটার সংখ্যা ১,৫৯,৫৯৭জন। তার মধ্যে পুরুষ ভোটার ৭৯,৪০৩ জন। আর মহিলা ভোটার সংখ্যা ৮০,১৯৪ জন। এক্ষেত্রে পুরুষের চেয়ে মহিলা ভোটার ৭৯১ জন বেশি। তাদের মধ্যে ৭২টি ভোট কেন্দ্রে ৮৫ হাজার ৫২৭ জন ভোটার তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করেন। গড় কাস্টিং ভোট ৫৪ দশমিক ৪৫ শতাংশ। উল্লেখ্য গুরুদাসপুর উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যানপদে বে-সরকারীভাবে আনোয়ার হোসেন ঘোড়া প্রতিকে নির্বাচিত হয়েছেন। তার প্রাপ্ত ভোট ৪৩ হাজার ৬৪। আলহাজ জাহিদুল ইসলাম নৌকা প্রতীক নিয়ে নিকটতম প্রতিদ্বন্দি। তার প্রাপ্ত ভোট ২১ হাজার ৩৬৯। সরকার এমদাদুল হক মোহাম্মদ আলী আনারস প্রতীকে পেছেন ২১ হাজার ৯৪ ভোট। উল্লেখ্য আনোয়ার হোসেন নাটোর জেলা আওয়ামীলীগের তথ্য ও গবেষনা বিষয়ক সম্পাদক,বিলচলন শহীদ সামসুজ্জোহা সরকারী কলেজের সাবেক ভিপি ও উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *