উলিপুরে এক প্রধান শিক্ষক কর্তৃক সহকারী শিক্ষক লাঞ্চিত হওয়ার অভিযোগ।

স্টাফ রিপোর্টারঃ

কুড়িগ্রামের উলিপুর উপজেলার গুনাইগাছ ইউনিয়নের রাজবল্লভ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোঃ আব্দুল ছালাম কর্তৃক সহকারী শিক্ষক এ কে এম ফজলুল হককে স্কুল চলাকালীন সময়ে লাঞ্চিত করার অভিযোগ উঠেছে।

লিখিত অভিযোগ সুত্রে জানা যায়,গত ৩০/০৩/২০১৯ইং তারিখে সহকারী শিক্ষক এ কে এম ফজলুল হক প্রতিদিনের ন্যায় সকাল ০৯ঘটিকার সময় বিদ্যালয়ে উপস্থিত হয়ে খাতায় হাজিরা স্বাক্ষর করে।পরে সকাল ১০.৩০ মিনিটে স্কুলের দক্ষিণ পার্শে কাঁচা রাস্তার উপরে একটি দূর্ঘটনা ঘটে।ওই সময় প্রধান শিক্ষক আব্দুস ছালাম ঘটনাস্থলে আসিয়া বিষয়টি দেখে ও দূর্ঘটনায় কবলিত উভয়কে বিদায় করে বিদ্যালয়ে উপস্থিত হয়।এবং তাকে দেখে ক্ষীপ্ত হয়ে গালিগালাজ করে।এবং দূর্ঘটনায় উপস্থিত না হওয়ার কারন জানতে চান।পরে ওই সহকারী শিক্ষক বলে দূর্ঘটনাস্থলে আপনি উপস্থিত থাকায় যায়নি।এ কথা বলায় প্রধান শিক্ষক তাকে চর থাপ্পর মারে।এবং পায়ের জুতা খুলে মারধরের চেষ্টা করলে ওই বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক তালেব এসে প্রধান শিক্ষককে বাঁধা প্রদান করে।

এ ঘটনায় সহকারী শিক্ষক এ কে এম ফজলুল হক গত ৩১/০৩/২০১৯ইং তারিখে উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও উপজেলা শিক্ষা অফিসার বরাবরে লিখিত অভিযোগ করেন।

এ ঘটনা সম্পর্কে মুঠোফোনে প্রধান শিক্ষক মোঃ আব্দুল ছালাম এর কাছে জানতে চাইলে তিনি জানান, বাড়ী থেকে স্কুলে যাওয়ার পথে দেখতে পায় স্কুলের দক্ষিণ পার্শে কাঁচা রাস্তায় মোটরসাইকেল এর সাথে বিদ্যালয়ের এক শিক্ষার্থী ধাক্কা লেগে পড়ে যায়।পরে প্রধান শিক্ষক ওই শিক্ষার্থীকে উদ্ধার করে।এবং স্কুলে গিয়ে সহকারী শিক্ষক এ কে এম ফজলুল হকের কাছে দূর্ঘটনা দেখে উপস্থিত না হওয়ার কারন জানতে চান।এতে দুই শিক্ষকের মধ্যে বাকবিতর্ক শুরু হয়।এরই এক পর্যায়ে হাতাহাতির ঘটনা ঘটে।

এব্যাপারে সোমবার(১৫ এপ্রিল) উপজেলা শিক্ষা অফিসার মোঃ মোজাম্মেল শাহ্ জানান,অফিসে অভিযোগ দেয়ার কথা শুনেছি।কাগজ হাতে পাইনি।কাগজ পেলে তদন্ত করে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *