উলিপুরে তিন যুগেও নির্মিত হয়নি ব্রিজ,জনগনের চরম ভোগান্তি।

সোহেল রানা, কুড়িগ্রাম থেকেঃ

কুড়িগ্রামের উলিপুরে প্রায় তিন যুগ ধরে নির্মান হয়নি একটি ব্রিজ। এতে করে ভোগান্তিতে পড়েছে উপজেলার থেতরাই, দলদলিয়া ও গুনাইগাছ ইউনিয়নের জনগন। এলাকাবাসী কখনো বাঁশের চাটাই, কখনো কাঁঠের পাটাতন দিয়ে কোন রকমে নিজেদের যোগাযোগ ব্যবস্থা চালু রেখেছেন। তাদের অভিযোগ দীর্ঘদিন বিভিন্ন দপ্তরে আবেদন করেও ব্রিজ নির্মানে কোন সাড়া মেলেনি।

উপজেলার থেতরাই ইউনিয়নের হোকডাঙ্গা হাজীপাড়া গ্রামের বাঁধের রাস্তাটি ১৯৮৮ সালের বন্যায় ছিড়ে যায়। এরপর দীর্ঘ ৩১ বছর ধরে কয়েক হাজার গ্রামবাসী জীবনের ঝুকি নিয়ে বাশ কাঠের তৈরি সাকোর উপর দিয়ে পারাপারে চরম ভোগান্তিতে দিনাতিপাত করলেও দেখার যেন কেউ নেই। যানচলাচলের কোন ব্যাবস্থা নাই, ফলে শিক্ষক-শিক্ষার্থী, অসুস্থ্য রোগী,বয়স্ক মানুষ, গবাদিপশু থেকে শুরু করে এলাকার সর্বস্তরের মানুষজন দূর্ঘটনা – দূর্ভোগের শিকার হচ্ছেন প্রতিনিয়ত।

ওই এলাকার অনেকে জানান, বাঁধের রাস্তাটি দিয়ে উপজেলার থেতরাই, দলদলিয়া ও গুনাইগাছ মোট তিনটি ইউনিয়নের কয়েক হাজার মানুষ প্রতিনিয়ত যাতায়াত করেন। ফলে ঐ এলাকার মানুষদের ভোগান্তি চরমে কষ্ট সীমাহীন।

থেতরাই ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আইয়ুব আলী সরকার জানান, আমরা এ ব্যাপারে উদ্দোগ নিয়ে বিভিন্ন দপ্তরে আবেদন করেছি। ব্রিজ নির্মানের ব্যবস্থা হলেও পানি উন্নয়ন বোর্ডের আপত্তির কারনে তা বাস্তবায়ন হচ্ছেনা।পাউবো এখানে স্লুইস গেট নির্মান করার প্রতিশ্রুতি দিলেও আজ পর্যন্ত এব্যাপারে দৃশ্যমান কোন উদ্যোগ গ্রহন করেননি।

উলিপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার আব্দুল কাদের জানান, ওই এলাকার বাঁধের রাস্তার ক্ষতিগ্রস্ত অংশটির বিষয়ে আমি অবগত আছি। এ ব্যাপারে উপজেলা পরিষদের মিটিং এ আলোচনা করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

কুড়িগ্রাম পানি উন্নয়ন বোর্ডের (পাউবো) নির্বাহী প্রকৌশলী আরিফুল ইসলাম বলেন, আমি সদ্য যোগদান করেছি। বিষয়টি আমার জানা নেই। খোঁজখবর নিয়ে দ্রুতই ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *