রায়েরবাজারে গণধর্ষণের অভিযোগ, কিশোরী ভিকটিম সাপোর্ট সেন্টারে, গ্রেপ্তার ৬

রাজধানীতে পোশাককর্মী এক কিশোরীকে (১৪) ধর্ষণের অভিযোগে ছয় যুবককে গ্রেপ্তার করেছে মোহাম্মদপুর থানা-পুলিশ। তাঁদের মধ্যে তিনজন ধর্ষণের ঘটনার সঙ্গে জড়িত থাকার কথা স্বীকার করে ঢাকার মুখ্য মহানগর হাকিম (সিএমএম) আদালতে জবানবন্দি দিয়েছেন। তাঁরা এখন কারাগারে। অপর তিনজনকে রিমান্ডে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করছে পুলিশ। তবে মামলার অন্যতম দুই আসামি জুয়েল ও হাসান এখনো পলাতক।

আদালতে জবানবন্দি দেওয়া তিনজন হলেন ভোলার ফেরদৌস (২০), শাহীন (১৯) ও মিলন (১৯)। রিমান্ডপ্রাপ্ত যুবকেরা হলেন জুয়েল (২৮), রাশেদুল ইসলাম (১৯) ও নয়ন (২২)।

কিশোরীর গ্রামের বাড়ি বরিশালে। সে এখন তেজগাঁও ভিকটিম সাপোর্ট সেন্টারে।

মোহাম্মদপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) জামাল উদ্দিন মীর প্রথম আলোকে বলেন, রায়েরবাজার বুদ্ধিজীবী কবরস্থান এলাকায় ওই কিশোরীকে পাঁচজনে মিলে ধর্ষণ করেন, তিনজন পাহারা দেন, একজন ছবি তোলেন। ইতিমধ্যে অভিযুক্ত ছয়জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। বাকিদের গ্রেপ্তারে অভিযান চলছে।

কিশোরীকে গণধর্ষণ করার অভিযোগ এনে তার মা গত বুধবার আটজনের নাম উল্লেখ করে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মোহাম্মদপুর থানায় মামলা করেছেন।

মামলার এজাহারে কিশোরীর মা বলেন, তাঁর মেয়ে মোহাম্মদপুরের একটি পোশাক কারখানায় চাকরি করে। ২১ সেপ্টেম্বর সন্ধ্যা সাতটার দিকে মোহাম্মদপুরের নূরজাহান রোডে তাজিয়া মিছিল দেখে মেয়ের পূর্বপরিচিত বিল্লালকে (২৫) নিয়ে রিকশায় করে বাড়ি ফিরছিল। রায়েরবাজার বুদ্ধিজীবী কবরস্থানের কাছে আসার পর বিল্লাল তাঁর মেয়েকে রাত পৌনে আটটার দিকে সেখানকার একটি নার্সারিতে নিয়ে যান। সেখানে বিল্লাল, ফেরদৌস, শাহীন, হাসান ও মিলন তাঁকে ধর্ষণ করেন। রাশেদুল তা মোবাইলে ভিডিও করেন। সেখানে পাহারায় ছিলেন নয়ন, জুয়েল ও রাশেদুল।

গত শুক্রবার রাশেদুল, জুয়েল ও নয়নকে আদালতে হাজির করে পুলিশ ১০ দিন রিমান্ডে নেওয়ার আবেদন করে মোহাম্মদপুর থানা-পুলিশ। ঘটনার রহস্য উদ্‌ঘাটনের জন্য আসামিদের প্রত্যেককে দুই দিন রিমান্ডে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করার জন্য পুলিশকে অনুমতি দেন আদালত।

পুলিশ আদালতে প্রতিবেদন দিয়ে বলেছে, ধর্ষণের পর অসুস্থ হয়ে পড়ে ওই কিশোরী। ওসি জামাল উদ্দিন মীর প্রথম আলোকে বলেন, কিশোরী তার মায়ের সঙ্গে থাকত। অভিযুক্ত আসামিরা আরও নানা অপরাধের সঙ্গে জড়িত। কিশোরীকে ধর্ষণে জড়িত প্রত্যেককে গ্রেপ্তার করে বিচারের মুখোমুখি করা হবে।