এবার পুঁচকে মস্কোর কাছে ধরা খেল রিয়াল

চ্যাম্পিয়নস লিগে সবচেয়ে সফল দল রিয়াল মাদ্রিদ। সেই দলটিই সিএসকেএ মস্কো বাধা টপকাতে পারল না। পুঁচকে দলটির বিপক্ষে ১-০ গোলে হেরে গেছে স্প্যানিশ জায়ান্টরা।

এ নিয়ে সব প্রতিযোগিতা মিলিয়ে টানা তিন ম্যাচে জয়শূন্য থাকল রিয়াল। কয়েক দিন আগে লা লিগায় সেভিয়ার বিপক্ষে ৩-০ গোলে উড়ে গিয়েছিল লস ব্লাঙ্কোরা। এর পর নগর প্রতিদ্বন্দ্বী অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদের সঙ্গে গোলশূন্য ড্র করেছিল। ফের হারের তিক্ত স্বাদ পেল তারা।

এ ম্যাচে ছিলেন না রিয়ালের সামনের সারির তারকারা। চোট ও বিস্বাদে সাইডবেঞ্চে ছিলেন গ্যারেথ বেল, সার্জিও রামোস, মার্সেলো ও ইসকো। তাদের অভাবটা পূরণ করতে পারেননি উঠতি তারকারা।

শুরুতেই গড়বড়, ম্যাচের দ্বিতীয় মিনিটেই পিছিয়ে পড়ে রিয়াল। নিজেদের দূর্গে ৬৫ সেকেন্ডে মস্কোকে লিড এনে দেন নিকোলা ভ্লাসিচ। পিছিয়ে পড়ে আক্রমণের ধার বাড়ায় গ্যালাকটিকোরা। তবে এদিন ফুটবলদেবীও তাদের সহায় ছিলেন না। ২৮ মিনিটে কাসেমিরোর দূরপাল্লার শট ক্রসবারে লেগে বাইরে চলে যায়। ৪০ মিনিটে করিম বেনজেমার হেডেরও একই পরিণতি হয়। ফলে পিছিয়ে থেকেই বিরতিতে যায় তারা।

দ্বিতীয়ার্ধে গোল শোধে মরিয়া চেষ্টা চালায় রিয়াল। একের পর এক আক্রমণে ওঠে। একাধিক সুযোগও পায়। তবে মস্কো গোলরক্ষক ইগোর আকিনফিভকে ফাঁকি দিতে পারেননি অ্যাসেনিসওরা। শেষ দিকে প্রাণপণ চেষ্টার অংশ হিসেবে ভুল শটের পসরা সাজান তারা। শেষ পর্যন্ত মাথা ঠাণ্ডা রেখে খেলতে না পারার মাসুল গুনে হার নিয়ে মাঠ ছাড়তে হয় হুলেন লোপেতেগুইয়ের শিষ্যদের।

জয়ের আনন্দে ভাসলেও একটি অস্বস্তি নিয়ে মাঠ ছেড়েছে মস্কো। ম্যাচের অন্তিম মুহূর্তে টানা দ্বিতীয় হলুদকার্ড দেখেছেন গোলপ্রহরী আকিনফিভ। ফলে পরের ম্যাচে খেলতে পারবেন না তিনি।