নৌকাকে বিজয়ী করে সব ষড়যন্ত্র মোকাবেলার আহ্বান হানিফের

আগামী জাতীয় নির্বাচনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে নৌকা মার্কাকে বিজয়ী করে সব ষড়যন্ত্র মোকাবেলার আহ্বান জানিয়েছেন আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুবউল আলম হানিফ।

উন্নয়নের ধারাবাহিকতা বজায় রাখতে হলে আগামী জাতীয় নির্বাচনে আওয়ামী লীগের বিজয়ের কোনো বিকল্প নেই বলেও মন্তব্য করেন তিনি।

হানিফ বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশে প্রতিটি ক্ষেত্রে বিস্ময়কর উন্নয়ন হয়েছে। এ উন্নয়ন শুধু দেশেই নয়, বিদেশেও প্রশংশিত ও সমাদৃত।

বুধবার সকালে রাজধানীর গুলিস্তানের পীর ইয়েমেনী মার্কেটের সামনে আগামী জাতীয় নির্বাচন উপলক্ষে সরকারের উন্নয়ন কর্মকাণ্ড ও বিএনপি-জামায়াতের সন্ত্রাস ও নাশকতার চিত্র তুলে ধরতে সপ্তাহব্যাপী গণসংযোগ কর্মসূচির তৃতীয় দিনে লিফলেট বিতরণ অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন।

হানিফ বলেন, বিশ্বনেতারাও বঙ্গবন্ধুর কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে উন্নয়নের জন্য অনুসরণীয় হতে পারেন বলে উল্লেখ করেছেন। তার বিচক্ষণতা ও সততার জন্যই দেশের এ অভাবনীয় উন্নয়ন সম্ভব হয়েছে।

ঢাকা মহানগর দক্ষিণের অধীন ২০নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি মনোয়ার হোসেন মনুর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সমাবেশে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম এমপি, একেএম এনামুল হক শামীম এবং বন ও পরিবেশবিষয়ক সম্পাদক দেলোয়ার হোসেন।

হানিফ বলেন, গণতান্ত্রিক পদ্ধতি অনুযায়ী নির্ধারিত সময় পর জাতীয় নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে সেটিই স্বাভাবিক। জনগণ যাদের পছন্দ করবে তাদের ভোট দিয়ে নির্বাচিত করবে। কিন্তু আমাদের দেশে নির্বাচন এলেই ষড়যন্ত্র শুরু হয়।

তিনি বলেন, যারা দেশকে দুর্নীতিতে বিশ্বচ্যাম্পিয়ন করেছিল, দেশকে জঙ্গিবাদের আখড়ায় পরিণত করেছিল ও এতিমের টাকা চুরি করে সাজাপ্রাপ্ত হয়েছে, তারাই আবার আগামী জাতীয় নির্বাচন নিয়ে ষড়যন্ত্র শুরু করেছে।

হানিফ বলেন, আবার কিছু দলছুট, নীতিহীন ও সুবিধাবাদী নেতা রয়েছে, তারাও নির্বাচন হলে সক্রিয় হয়ে যায়, বিভিন্ন গঠনের নামে দেশে ষড়যন্ত্র শুরু করে। দেশে অস্থিতিশীল পরিবেশ তৈরি করে অনির্বাচিত সরকার ক্ষমতায় আনার তৎপরতায় লিপ্ত হয়। তাদের সম্পর্কেও সচেতন থাকতে হবে।

সমাবেশ শেষে হানিফের নেতৃত্বে কেন্দ্রীয় নেতারা আশপাশের বিভিন্ন মার্কেটে লিফলেট বিতরণ করেন।

এ সময় তারা সরকারের বিভিন্ন উন্নয়ন কর্মকাণ্ডের কথা তুলে ধরেন এবং বিএনপি-জামায়াতের নাশকতার চিত্র সাধারণ মানুষের কাছে তুলে ধরেন।

তারা আগামী জাতীয় নির্বাচন কেন্দ্র করে ২০১৪ সালের মতো দেশে যেন কোনো অস্থিতিশীল পরিবেশ তৈরি করতে না পারে সে জন্যও জনগণকে সতর্ক থাকতে বলেন। সূত্র: বাসস।