লিটনের বিতর্কিত আউটের জেরে কোহলির ওয়েবসাইট হ্যাক

এশিয়া কাপের ফাইনালে লিটন দাসের বিতর্কিত আউটের রেশ থামছেই না। লাইনে পা থাকার পরও তাকে আউট দেয়ার দুঃসহ স্মৃতি ভুলতে পারছেন না বাংলাদেশি সমর্থকরা। একটি হ্যাকার গোষ্ঠী আবার আরেক কাঠি সরেস। ক্ষোভের বহিঃপ্রকাশ ঘটাতে বিরাট কোহলির ওয়েবসাইট হ্যাক করেছে তারা।

টানা ক্রিকেটের ধকল সারতে এশিয়া কাপে বিশ্রামে ছিলেন ভারতীয় অধিনায়ক। কোনো ম্যাচই খেলেননি। অথচ তার ওয়েবসাইটকেই হ্যাকিংয়ের শিকার হতে হল।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যমের দাবি, কোহলির ওয়েবসাইট হ্যাক করেছে বাংলাদেশি হ্যাকার গোষ্ঠী। সাইবার সিকিউরিটি অ্যান্ড ইন্টেলিজেন্স (সিএসআই) গ্রুপ এ কাণ্ড ঘটিয়েছে। এতেই ক্ষ্যান্ত হয়নি তারা। সেখানে একাধিক বার্তা দিয়ে আইসিসির প্রতি ক্ষোভ ও হতাশা প্রকাশ করেছে।

কোহলির অফিসিয়াল ওয়েবসাইটে ঢুঁ মারলে দেখা গেছে, গ্যালারি বিভাগে লিটন দাসের আউট হওয়ার কয়েকটি ছবি আছে। সঙ্গে সংযুক্ত আছে মেসেজ। সিএসআইয়ের দাবি, লিটন আউট ছিলেন না। এ সিদ্ধান্তের মাধ্যমে ভারতের প্রতি পক্ষপাতিত্ব করেছেন আম্পায়াররা।

হ্যাকাররা লেখেন- প্রিয় আইসিসি, ক্রিকেট তো ভদ্রলোকের খেলা? সব দলেরই কী সমান অধিকার থাকা উচিত নয়? অনুগ্রহ করে ব্যাখ্যা করুন- এটি কীভাবে আউট হল?

এ কারণে ক্ষমা না চাইলে এমন কর্মকাণ্ড চালিয়ে যাওয়ার হুশিয়ারি দিয়েছেন তারা। হ্যাকাররা উল্লেখ করেন, আপনারা যদি আনুষ্ঠানিকভাবে ক্ষমা না চান এবং আম্পায়ারদের শাস্তি না দেন, তা হলে যতবার সাইট পুনরুদ্ধার করবেন ততবারই হ্যাক করব। ভারতীয় ভাইবোনদের বলছি- আপনাদের অসম্মান করছি না। অনুগ্রহ করে একটু ভেবে দেখুন- আপনাদের সঙ্গে এমন অবিচার করলে কেমন লাগত? খেলায় প্রতি দলকে সমান নজরে দেখা উচিত। আমরা এর শেষ দেখে ছাড়ব।

বাংলাদেশের হ্যাকার গোষ্ঠী হিসেবে দাবি করেছে সিএসআই। নিজেদের ফেসবুক পেজে লিখেছে- আমরা সবাই জানি, ক্রিকেট জেন্টেলম্যানদের খেলা। বাংলাদেশ প্রায়ই এমন পক্ষপাতিত্বের জন্য ব্যর্থ হয়। প্রতিবাদস্বরূপ কোহলির ওয়েবসাইট হ্যাক করা হল। আগামীতে আরও কিছু দেখার অপেক্ষায় থাকুন।