দেশের মানুষ মুক্তি চায়: এরশাদ

সাবেক রাষ্ট্রপতি ও জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ বলেছেন, দেশের মানুষ আর আওয়ামী লীগ এবং বিএনপিকে চায় না। দেশের মানুষ পরিবর্তন চায়। তারা এখন জাতীয় পার্টিকেই চায়।

তিনি আরও বলেন, এ দেশের মানুষ জানে জাতীয় পার্টিই দেশে সুশাসন দিতে পারবে। ভয় অর ক্ষুধামুক্ত বাংলাদেশ গড়তে জাতীয় পার্টির বিকল্প নেই।

বৃহস্পতিবার রাজধানীর গুলশান-১ সার্কেলের স্পেক্ট্রা কনভেনশন হলে জাতীয় পার্টির সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে সক্রিয় নেতাদের জন্য দিনব্যাপী স্টার্টআপ কর্মশালায় হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ এ কথা বলেন।

তিনি বলেন, দেশের মানুষ ভালো নেই। মানুষের জীবনের নিরাপত্তা নেই। খুন, গুম আর সড়কে হত্যার সংখ্যা আমাদের জীবন অশান্ত করে তুলেছে।

এরশাদ বলেন, মানুষ জাতীয় পার্টিকে বিশ্বাস করে কারন, আমাদের হাতে রক্তের দাগ নেই। আমরা ক্ষমতায় টিকে থাকার জন্য মানুষ খুন করিনি।

তিনি বলেন, আমাদের কোনো কলঙ্ক নেই। এরশাদ আক্ষেপ প্রকাশ করে বলেন, কত মানুষ খুন হলো, কত মানুষ গুম হলো কেউ তার খবর রাখে না। প্রিয়জনহারা মানুষের চোখের জল কেউ দেখে না।

হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ বলেন, দেশের মানুষ মুক্তি চায়। আমরাই নির্বাচনে জয়ী হয়ে দেশের মানুষকে মুক্তি দেব। আমরাই মানুষের নিশ্চিন্ত ঘুম নিশ্চিত করব।

স্টার্টআপ কর্মশালাটি পরিচালনা করেন হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের তথ্য ও প্রযুক্তিবিষয়ক উপদেষ্টা পীরজাদা শফিউল্লাহ আল মুনির।

আলোচনায় অংশ নেন- পার্টির মহাসচিব এবিএম রুহুল আমিন হাওলাদার, প্রেসিডিয়াম সদস্য জিয়াউদ্দিন আহমেদ বাবলু, অধ্যাপক দেলোয়ার হোসেন খান, সাঈদুর রহমান টেপা, সুনীল শুভ রায়, এসএম ফয়সল চিশতী, আজম খান, মেজর (অব.) খালেদ আখতার।